চিত্রনায়িকা “পরী মণির” স্বপ্নটা একটু বড় হয়ে গেল

শেয়ার করুন

বিনোদন ডেস্ক;
আলোচিত চিত্রনায়িকা পরী মণি । টানা শিডিউল, দম ফেলার ফুরসত নেই ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরী মণির। আগামীকাল শুক্রবার মুক্তি পাচ্ছে তাঁর অভিনীত সিনেমা ‘বিশ্বসুন্দরী’। সিনেমাটির প্রচারণায় বেশ ব্যস্ত এ চিত্রনায়িকা। আবার এ দিন থেকেই শুটিংয়ে যাচ্ছে তাঁর নতুন সিনেমা ‘স্ফুলিঙ্গ’। যদিও তৌকীর আহমেদের এ সিনেমার শুটিংয়ে পরী অংশ নিচ্ছেন রোববার থেকে।

সিনেমার বাইরে ৭ ডিসেম্বর জনপ্রিয় মার্কিন সাময়িকী ফোর্বসের ‘এশিয়ার ১০০ ডিজিটাল তারকা’র তালিকায় বাংলাদেশের একমাত্র তারকা হিসেবে নাম এসেছে পরী মণির। সিনেমার ব্যস্ততায় এ প্রসঙ্গে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানাতে পারেননি তিনি।

বুধবার সন্ধ্যায় বনানী ক্লাবে ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার পরিচয়পর্ব অনুষ্ঠান শেষে পরী জানিয়েছেন ফোর্বসে তাঁর নাম আসা প্রসঙ্গে। খবরটি শোনা প্রসঙ্গে পরী মণির বক্তব্য, “হঠাৎ করে অনেক ফোন আসা শুরু করে। যার মধ্যে অনেক এসএমএস, প্রায়ই কনগ্রাচুলেশন। তো আমি ভাবলাম কি, এটা ১১ তারিখের জন্য মে বি, ‘বিশ্বসুন্দরী’ রিলিজ হচ্ছে। ওই সময় আমি রেডি হচ্ছিলাম, চয়নিকা চৌধুরী ছিলেন। উনি খুব তাড়াহুড়ো করছিলেন, চলো… ৪টার দিকে আমাদের একটা চ্যানেলে প্রোগ্রাম ছিল। আমরা রেডি হচ্ছিলাম, ওই সময় এত বেশি ফোন আসছিল যে আমি একটা পর্যায়ে একটু লাউড হয়ে গেলাম… এতবার ফোন, কী সমস্যা… এরপর রেগেই ফোনটা ধরলাম।

‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমার পরিচয়পর্ব অনুষ্ঠানে পরী মণি।
এ গল্পে পরী আরো যুক্ত করেছেন, ‘আমার প্রোগ্রাম ছিল ৪টা থেকে, আমি বাসায় আসলাম সাড়ে ১০টার দিকে। তারপর ফোনটা হাতে নিলাম। নেওয়ার পর আমি এমন করে বসে ছিলাম। এত ফোন, এত এসএমএস, এত উইশ, আমি বুঝতে পারিনি যে আসলেই.

পরী মণি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে আরো বলেছেন, ‘কাল রাতে আমি একটা জিনিস রিয়েলাইজ করেছি… মানুষ তো স্বপ্ন দেখে, তাঁর তো একটা কারণ থাকে স্বপ্ন দেখার। আমার মনে হয় ড্রিমটা একটু বড় হয়ে গেল। আরো ভালো ভালো কাজ করার চ্যালেঞ্জটাও রয়ে গেল। শুধু ফ্যান-ফলোয়ার না, অবশ্যই এটা কাজের জন্য…আসলে এই অর্জনটা আমার না। যাঁরা আমাকে ভালোবেসেছেন, সাপোর্ট দিয়েছেন, আমি তাঁদের প্রতি অনেক বেশি কৃতজ্ঞ।’

ফোর্বস প্রকাশিত তালিকায় পরী মণি সম্পর্কে লিখেছে, “ফেসবুকে প্রায় এক কোটি ফলোয়ার রয়েছে মণির। তাঁর আসল নাম শামসুন্নাহার স্মৃতি। ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ২০১৯ সালের সিজেএফবি পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ডে সেরা অভিনেত্রীর (সমালোচক) পুরস্কার জেতেন তিনি। এখন তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ওপর একটি চলচ্চিত্রসহ বেশ কিছু চলচ্চিত্রে কাজ করছেন, যদিও করোনা মহামারির কারণে তাঁর অভিনীত ‘বিশ্বসুন্দরী’ সিনেমার মুক্তির তারিখ পিছিয়েছিল।”

এই তালিকায় ভারত থেকে জায়গা পেয়েছেন ১২ তারকা। এঁদের মধ্যে রয়েছেন অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খান, আলিয়া ভাট, রণবীর সিং, হৃতিক রোশন, নেহা কক্কর, শহিদ কাপুর, মাধুরী দীক্ষিত, ক্যাটরিনা কাইফ, আনুশকা শর্মা, অক্ষয় কুমার ও শ্রেয়া ঘোষাল।

ফোর্বসের ‘এশিয়ার ১০০ ডিজিটাল তারকা’র তালিকায় প্রথম স্থানে আছে দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যান্ড ‘ব্ল্যাকপিঙ্ক’, দ্বিতীয় স্থানে চীনা গায়ক ও অভিনেতা জ্যাকসন ইয়ের, তৃতীয় অবস্থানে থাইল্যান্ডের অভিনেত্রী দাভিকা হর্নে এবং চতুর্থ অবস্থানে অমিতাভ বচ্চন।

Related posts

Leave a Comment