কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ এর সাথে বিকাশের সমন্বিত লেনদেন সেবা চালু

শেয়ার করুন

নিউজ ডেস্ক ;
কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের সাথে বিকাশের সমন্বিত লেনদেন সেবা চালু হয়েছে। ফলে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সকল সদস্যসহ কমিউনিটি ব্যাংকের সব গ্রাহক এখন তাৎক্ষণিক বিকাশ অ্যাকাউন্টে টাকা আনতে পারবেন এবং বিকাশ থেকে কমিউনিটি ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে টাকা জমাও দিতে পারবেন।

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ ও কমিউনিটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) আজ (১১ সেপ্টেম্বর) বিকালে রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের বাণিজ্যিক ব্যাংক কমিউনিটি ব্যাংক এবং দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল আর্থিক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশের এ যৌথ সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ সময় কমিউনিটি ব্যাংকের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মসিউল হক চৌধুরী এবং বিকাশের সিইও কামাল কাদীর সহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ ও কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুই বছর আগে কমিউনিটি ব্যাংক উদ্বোধন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা পুলিশের ব্যাংক করতে চাইনি। আমরা জনগণের জন্য ব্যাংক করেছি। কারণ পুলিশ কমিউনিটির জন্য, মানুষের জন্য কাজ করে। এজন্য এ ব্যাংকের নাম রাখা হয়েছে কমিউনিটি ব্যাংক।

তিনি বলেন, কমিউনিটি ব্যাংক গত দুবছরে অনেক দূর এগিয়েছে। আগামীতে এর গতি আরও ত্বরান্বিত হবে এতে কোন সন্দেহ নেই।

তিনি বলেন, বিকাশ দেশে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। বর্তমানে দেশে মোবাইল ব্যাংকিং অনেক জনপ্রিয় হয়েছে।

বিকাশের সাথে কমিউনিটি ব্যাংকের আজকের চুক্তি কমিউনিটি ব্যাংকের আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

কমিউনিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মসিউল হক চৌধুরী বলেন, যাত্রা শুরুর মাত্র ২ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যসহ অসংখ্য গ্রাহকের নিরবচ্ছিন্ন ব্যাংকিং সেবা নিশ্চিত করতে আমরা প্রযুক্তিভিত্তিক আধুনিক সব সেবা যুক্ত করেছি। বিকাশের সাথে এ দ্বিমুখী লেনদেন আমাদের গ্রাহকদের আরও বৈচিত্র্যময় এবং সৃজনশীল সেবা নেয়ার সুযোগ এনে দিল।

বিকাশের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কামাল কাদীর বলেন, আমাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা নিরন্তর কাজ করে চলেছেন। কমিউনিটি ব্যাংকের সাথে আমাদের এ যৌথ সেবা তাঁদের প্রতিদিনকার প্রয়োজনসহ যেকোন জরুরি আর্থিক লেনদেনকে সহজ করবে এবং দূরে থেকেও পরিবার ও স্বজনের পাশে থাকার সুযোগ এনে দেবে।

এ উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যসহ কমিউনিটি ব্যাংকের সব গ্রাহকের জন্য ব্যাংকিং লেনদেন আরও সহজ, নিরাপদ এবং সময় ও খরচ সাশ্রয়ী হলো। পাশাপাশি আরও বেশি সংখ্যক গ্রাহকের কাছে কমিউনিটি ব্যাংকের সব সৃজনশীল সেবা পৌঁছে দেয়ার সুযোগ তৈরি হলো।

এ সেবা পেতে প্রথমে গ্রাহকদের বিকাশ অ্যাপ থেকে বিকাশ অ্যাকাউন্ট ও কমিউনিটি ব্যাংকের অ্যাকাউন্টের মধ্যে লিংক স্থাপন করতে হবে। লিংক স্থাপনের ক্ষেত্রে উভয় অ্যাকাউন্টের কেওয়াইসি তথ্য একই হতে হবে। লিংক স্থাপন হয়ে গেলে বিকাশ অ্যাপের ‘অ্যাড মানি’ এর মাধ্যমে কমিউনিটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সহজেই বিকাশ অ্যাকাউন্টে টাকা নিয়ে আসতে পারবেন এবং প্রয়োজন মত ব্যবহার করতে পারবেন। পাশাপাশি কমিউনিটি ব্যাংকের অ্যাপ ‘কমিউনিটি ক্যাশ’ থেকেও বিকাশ অ্যাকাউন্টে অ্যাড মানি করতে পারবেন গ্রাহক। কমিউনিটি ক্যাশ অ্যাপে নিজের অথবা প্রিয়জনের নম্বর বেনিফিশিয়ারি হিসেবে যুক্ত করে এই অ্যাড মানি সেবা নেয়ার সুযোগ থাকবে।

আবার ব্যাংকে না গিয়ে কমিউনিটি ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দেয়াসহ ডিপিএস, ঋণের কিস্তি ইত্যাদি নানাবিধ সেবা বিকাশ অ্যাপের ‘ট্রান্সফার মানি’ এর মাধ্যমে গ্রাহকরা ঘরে বসেই নিতে পারবেন। উল্লেখ্য, অ্যাড মানি বা ট্রান্সফার মানি উভয় ক্ষেত্রেই বাংলাদেশ ব্যাংক নির্ধারিত ‘ট্রানজেকশন লিমিট’ প্রযোজ্য হবে।

কমিউনিটি ব্যাংকের গ্রাহকরা এখন দেশের যে কোন স্থান থেকে ২৪ ঘন্টা, ৩৬৫ দিন লেনদেন করতে পারবেন বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে। দৈনন্দিন ব্যাংকিং প্রয়োজন মেটাতে এখন ব্যাংক শাখায় যাওয়ার বাধ্যবাধকতা নেই।

পাশাপাশি সারাদেশে ছড়িয়ে থাকা কমিউনিটি ব্যাংকের ১৬৫টি এটিএম বুথ থেকে শতকরা ১.৪৯ হারে ক্যাশ আউট সেবাও নিতে পারবেন বিকাশের সাড়ে পাঁচ কোটি গ্রাহক।

Related posts

Leave a Comment